আম্ফানের আঘাতে প্রাণ হারানো ইয়ানুর বেগমের পরিবারের পাশে এমপি জ্যাকব

চরফ্যাশন অফিস : চরফ্যাশন উপজেলার এওয়াজপুরে ঘুর্ণিঝড় আম্ফানে মৃত্যুবরণকারী ইয়ানুর বেগমের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা ও সমবেদনা জানান যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব এমপি মহোদয়।

আজ শনিবার তিনি এ সহযোগিতা প্রদান করেন । এর আগে ২২ মে শুক্রবার সকাল থেকে বিকাল সাড়ে ৪টায় পর্যন্ত ভোলার চরফ্যাশন উপজেলার বিভিন্ন স্থানে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে আম্ফানে অসহায় ও ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেন এমপি জ্যাকব।

জানা গেছে, ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের প্রভাবে ২০ মে চরফ্যাশন উপজেলার এওয়াজপুর ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডে ইয়ানুর বেগমের (৩০) মাথায় সুপারি গাছ ভেঙে পড়ে। প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়ার সময় চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, তার মাথায় প্রায় ২৫/২৬টি সেলাই লেগেছে। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছিল। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিক‌্যাল কলেজ হাসপাতালে (শেবাচিম) পাঠানে হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২১ মে সকাল ৭ টা ২০ মিনিটের সময় তার মৃত্যু হয়।

প্রসঙ্গত, শুধু ঘূর্ণিঝড় আম্ফান নয়, করোনাভাইরাসের কারণে কর্মহীন মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন। মহামারি করোনার কারণে কর্মহীন দরিদ্র মানুষকে সহায়তা দিতে ব্যক্তিগত অর্থায়নে “মানুষ মানুষের জন্য”কর্মসচী গ্রহণ করেন এমপি জ্যাকব। এ কর্মসূচীর আওতায় দু’দফায় ২৫ লাখ করে ৫০ লাখ টাকা অনুদান দেন ভোলা-৪ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য, যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব এমপি। দুই ধাপে তিনি চরফ্যাশন ও মনপুরাবাসীর জন্য ৫০ লাখ টাকা অনুদান প্রদান করেন। ব্যক্তিগত তহবিল থেকে মনপুরায় ও চরফ্যাশনের প্রদান অব্যাহত রেখেছেন এমপি জ্যাকব। করোনা ভাইরাসের কারণে চরফ্যাশনের খাবার হোটেল ও রেস্তরাগুলো বন্ধ থাকায় বাজারে থাকা অপ্রকৃতিস্থ লোকজন ও কুকুরগুলো যখন অনাহারে দিন কাটাচ্ছিল তখন সেইসব অনাহারী কুকুরগুলোর জন্য খাবারের ব্যবস্থা করে অনাহারী কৃকুরগুলোরজন্য খাবারের ব্যবস্থা করে মানবিকতার পরিচয় দিয়েছেন তিনি। যা এখনো অব্যাহত রয়েছে। এছাড়া পুরো উপজেলায় ত্রাণ তৎপরতা পরিচালনার জন্য ১২ সদস্য বিশিষ্ট কমিটিও গঠন করেছেন এমপি জ্যাকব।
শীর্ষবাণী ডটকম/এনএ