যুবলীগ নেতা ফয়েজ মাহমুদের দাফন সম্পন্ন, এমপি জ্যাকবের শোক

চরফ্যাশন অফিস: বরিশালের কীর্তনখলা নদী পারাপারের সময় ট্রলার থেকে পরে ডুবে গিয়ে নিহত চরফ্যাশন উপজেলার ওসমানগঞ্জ ইউনিয়নের যুবলীগ সভাপতি ফয়েজ মাহমুদ মিয়ার (৪০) দাফন সম্পন্ন হয়েছে। আজ ১৬ আগস্ট আছর নামাজের পর তার নিজ এলাকায় জানাজা শেষে দাফন সম্পন্ন হয়।

এর আগে চরফ্যাশন উপজেলার ওসমানগঞ্জ ইউনিয়নের নিখোঁজ যুবলীগ সভাপতি ফয়েজ মাহমুদ মিয়া (৪০) ট্রালার থেকে পরে গিয়ে বেশকিছু দিন নিখোঁজ ছিলেন। পরে আজ ১৬ আগস্ট সকালে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তার পিতার নাম মৃত সুলতান মিয়া। বুধবার ১২ আগস্ট সকাল ১০টায় ফয়েজ মাহমুদ মিয়া বরিশাল নগরীর কীর্তনখোলা নদীতে খেয়া পার হওয়ার জন্য ট্রলারে উঠেন। পরবর্তীতে ট্রলারের চালক বলেন, ফয়েজ মাহমুদ মিয়া ট্রলার থেকে নদীতে পরে যায়।

আজ ১৬ আগস্ট কীর্তন খোলা নদীতে ফয়েজ মাহমুদের লাশ পাওয়া গেছে। দীর্ঘদিন পর আজ সকালে তার লাশ ভেসে উঠেছে।
বরিশাল বন্দর নৌপুলিশ কীর্তনখোলা নদী থেকে অবশেষে তার নিথরদেহ উদ্ধার করতে সক্ষম হয়েছে।

যুবলীগ নেতা ফয়েজ মাহমুদ নিখোঁজ হওয়ার পর থেকে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও ভোলা-৪ আসনের সংসদ সদস্য আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব তাকে উদ্ধারে ব্যাপক তৎপরতা চালান। তিনি নৌ-পুলিশ, কোস্টগার্ড ও ডুবুরি দলের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রাখেন। পরে আজ ফয়েজ মাহমুদের লাশ উদ্ধার হওয়ার পর গভীর শোক ও সমবেদনা জানান যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও ভোলা-৪ আসনের সংসদ সদস্য আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব। তিনি ত্যাগী এ নেতার রূহের মাগফিরাত কামনা করেন।

এদিকে ফয়েজ মাহমুদের মৃত্যুতে চরফ্যাশন উপজেলা যুবলীগ পরিবার গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। যুবলীগের পক্ষ থেকে তার শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করা হয়েছে।
শীর্ষবাণী ডটকম/এনএ