মনপুরায় চিকিৎসক-সেবিকা, ব্যাংক কর্মকর্তাসহ আরো ৬ জন করোনায় আক্রান্ত

মনপুরা প্রতিনিধি : ভোলার বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা মনপুরায় চিকিৎসক, সেবিকা, ব্যাংক কর্মকর্তাসহ আরো ৬ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া মনপুরা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার(পিআইও) পুনরায় দেওয়া নমূনার ফলাফলও পজেটিভ এসেছে। ৬ জুলাই সোমবার সকালে মনপুরা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাহমুদুর রশীদ এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি আরো বলেন, গত ২৯জুন নমুনা সংগ্রহ করে আমরা ঢাকার ল্যাবে পাঠাই। আজ সেই নমুনার ফলাফলে ৬ জনের করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। যার মধ্যে মনপুরা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ১ জন চিকিৎসক, ১ জন সেবিকা, ১ জন কৃষি ব্যাংক কর্মকর্তা, ১ জন স্থানীয় সরকার প্রকৌশল দপ্তরের (এলজিইডি) ৩য় শ্রেনীর কর্মচারী এবং আরেকজন হলেন ইতিপূর্বে করোনা পজেটিভ হওয়া মনপুরার একটি কমিউনিটি ক্লিনিকের সিএইচসিপি’র স্ত্রী। এছাড়া মনপুরা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা(পিআইও) গত ২৫ জুন পজেটিভ হলে ২৯ জুন তিনি স্ব-ইচ্ছায় আবার নমূনা দিয়ে যান। তার দেওয়া সেই নমুনার ফলাফলও পজেটিভ এসেছে।

তিনি বলেন, মনপুরা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক অসুস্থতা অনুভব করলে নমুনা দিয়ে গত ৩ জুলাই বরিশাল চলে যান। বর্তমানে তিনি তার নিজ বাসায় থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন। আক্রান্ত সেবিকা হোম আইসোলেশনে রয়েছেন। তার সাথে অন্যান্য সেবিকাদের হোম কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিত করা হয়েছে। এছাড়া অন্যান্য আক্রান্তদের হোম আইসোলেশন নিশ্চিত করার জন্য ইউএনও মহোদয়ের সাথে কথা হয়েছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, এ পর্যন্ত ২৭৮ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে। অপেক্ষমান থাকা নমুনার সবগুলোর অর্থাৎ ২৭৮ জনেরই নমুনার ফলাফল পাওয়া গেছে। যার মধ্যে ১৯ জনের করোনা পজেটিভ শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ১০ জনকে সুস্থ হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। পূর্বের ৩জনসহ সর্বমোট ৯ জন বর্তমানে হোম আইসোলেশনে চিকিৎসা নিচ্ছেন।
শীর্ষবাণী/এনএ