নবীনগরে স্বামী হত্যার বিচার দাবিতে সন্তানদের নিয়ে মানববন্ধন

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি : স্বামী হত্যার বিচার ও খুনিদের গ্রেফতারের দাবিতে লকডাউন উপেক্ষা করে তিন সন্তান ও পরিবারের সদস্যদের নিয়ে মানববন্ধন করেন নিহত জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী।

এলাকার শত শত নারী-পুরুষ মানববন্ধনে অংশগ্রহণ করেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার জীবনগঞ্জ বাজারের বাড্ডা সড়কে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

জানা যায়, উপজেলার সলিমগঞ্জ ইউনিয়নের বাড্ডা গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমকে শুক্রবার বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে হত্যা করে সন্ত্রাসীরা। খুনের সঙ্গে সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে মোতালিব নামে এক ব্যক্তিকে ঘটনার পরপরই গ্রেফতার করা হয়; কিন্তু পরিবারের অভিযোগ ঘটনার ৬ দিন পেরিয়ে গেলেও পুলিশ এখনও খুনের রহস্য উন্মোচন করতে পারেনি।

নিহত জাহাঙ্গীর আলমের স্ত্রী বলেন, আমার স্বামী খুন হওয়ার ৬ দিন পেরিয়ে গেলেও পুলিশ খুনের রহস্য উন্মোচন করতে এবং এ খুনের সঙ্গে জড়িত অন্য আসামিদের চিহ্নিত ও গ্রেফতার করতে ব্যর্থ।

সেই কারণে আমার এতিম সন্তানদের নিয়ে রাস্তায় মানববন্ধন করতে বাধ্য হয়েছি। আমার স্বামীর খুনিদের ফাঁসি চাই।

মানববন্ধনে নিহত জাহাঙ্গীর আলমের ভাই আসাদ মিয়া বলেন, আমার ভাইকে খুন করে খুনিরা ঘোরাফেরা করবে আর পুলিশ তাদের গ্রেফতার করতে পারবে না; এটি কেন হবে।

নিহত জাহাঙ্গীর আলমের চাচাতো ভাই মোশারফ হোসেন বলেন, পুলিশের আরও জোরালো ভূমিকা নিতে হবে। জাহাঙ্গীর আলমের নাবালক সন্তানরা বলেন, আমাদের যারা এতিম করেছে তাদের ফাঁসি চাই। হত্যার ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করে দ্রুত গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।