দেশে করোনায় আরও ২৩৭ জনের প্রাণহানি

দেশে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ২০ হাজার ছাড়িয়েছে। তবে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু কিছুটা কমেছে। এই সময়ে ২৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এখন পর্যন্ত দেশে মোট মৃত্যু ২০ হাজার ১৬ জনে দাঁড়িয়েছে।

এছাড়া গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা শনাক্ত হয়েছে ১৬ হাজার ২৩০ জন। যা করোনা শনাক্তের নতুন রেকর্ড। এ নিয়ে দেশে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ১২ লাখ ১০ হাজার ৯৮২ জনে।

বুধবার (২৮ জুলাই) বিকেলে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এসব তথ্য জানানো হয়।
বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়, গত ২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়েছেন ১৩ হাজার ৪৭০ জন। এ নিয়ে মোট সুস্থ হয়েছেন ১০ লাখ ৩৪ হাজার ৮৮৪ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় ৫৩ হাজার ৮৭৭ জনের নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হার ৩০ দশমিক ১২।
এর আগে, গতকাল মঙ্গলবার (২৭ জুলাই) করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ২৫৮ জনের মৃত্যু হয়। এছাড়া করোনা শনাক্ত হয় ১৪ হাজার ৯২৫ জন। শনাক্তের হার ছিল ২৮ দশমিক ৪৪ শতাংশ।
এদিকে, বিশ্বে করোনা সংক্রমণে নতুন করে আরও ১০ হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়েছে। একই সময়ে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছে আরও ৬ লাখ ৩৭ হাজার ৯১৫ জন। একদিনের ব্যবধানে বিশ্বে আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা অনেক বেড়ে গেছে। বেশিরভাগ দেশেই গত কয়েক সপ্তাহে করোনা পরিস্থিতির লাগাম টানা যাচ্ছে না।

বুধবার (২৮ জুলাই) ওয়ার্ল্ডোমিটারের সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, বিশ্বে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১৯ কোটি ৫৯ লাখ ৮৩ হাজার ৪৩১। এর মধ্যে মারা গেছে ৪১ লাখ ৯৩ হাজার ১শ জন। তবে ইতোমধ্যেই সুস্থ হয়ে উঠেছে ১৭ কোটি ৭৬ লাখ ৬১ হাজার ৩৭২ জন। বিশ্বের ২২০টি দেশ ও অঞ্চলে এই প্রাণঘাতী ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব ছড়িয়ে পড়েছে।
২০১৯ সালের ডিসেম্বরে চীনের উহানে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। দেশটিতে করোনায় প্রথম রোগীর মৃত্যু হয় ২০২০ সালের ৯ জানুয়ারি। ওই বছরের ১৩ জানুয়ারি চীনের বাইরে প্রথম করোনা রোগী শনাক্ত হয় থাইল্যান্ডে।
করোনা সংক্রমণ ও মৃত্যুতে এখন পর্যন্ত বিশ্বে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা শনাক্ত হয়েছে তিন কোটি ৫৩ লাখ ৫৩ হাজার ৯২৩ জনের। এদের মধ্যে মারা গেছেন ৬ লাখ ২৭ হাজার ৩৫১ জন। আর সুস্থ হয়েছেন দুই কোটি ৯৫ লাখ ৭১ হাজার ৪৩৪ জন।
এই তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ভারত। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন তিন কোটি ১৪ লাখ ৮৩ হাজার ৪১১ জন। এদের মধ্যে মারা গেছেন চার লাখ ২২ হাজার ৫৪ জন। তবে ইতোমধ্যেই সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ৩ কোটি ৬ লাখ ৫৫ হাজার ৩৯০ জন।
তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে ল্যাটিন আমেরিকার দেশ ব্রাজিল। তবে মৃত্যুর দিক থেকে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে দেশটি। সেখানে এখন পর্যন্ত মৃত্যুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে পাঁচ লাখ ৫১ হাজার ৯০৬ জনে। দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ৯৭ লাখ ৪৯ হাজার ৭৩। তবে সুস্থ হয়ে উঠেছে ১ কোটি ৮৪ লাখ ৬৬ হাজার ৮২২ জন।
তালিকার চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে রাশিয়া। দেশটিতে এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ৬১ লাখ ৭২ হাজার ৮১২। এর মধ্যে মারা গেছে ১ লাখ ৫৫ হাজার ৩৮০ জন এবং সুস্থ হয়ে উঠেছে ৫৫ লাখ ২৬ হাজার ৯৫০ জন।
এদিকে ফ্রান্সে আক্রান্তের সংখ্যা ৬০ লাখ ২৬ হাজার ১১৫। এর মধ্যে মারা গেছে ১ লাখ ১১ হাজার ৬৯৫ জন। দেশটিতে ইতোমধ্যেই করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছে ৫৬ লাখ ৮২ হাজার ৯৭০ জন।
তালিকায় বাংলাদেশের অবস্থান এখন ২৬ নম্বরে। দেশে এখন পর্যন্ত করোনা শনাক্ত রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১১ লাখ ৯৪ হাজার ৭৫২ জনে।। এর মধ্যে মারা গেছেন ১৯ হাজার ৭৭৯ জন। গত ২৪ ঘণ্টায় এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে সারাদেশে আরও ২৫৮ জনের মৃত্যু হয়েছে।
এদের মধ্যে পুরুষ ১৩৮ ও নারী ১২০ জন। এদের মধ্যে সরকারি হাসপাতালে ২০২ জন, বেসরকারি হাসপাতালে ৩৯ জন, বাড়িতে ১৫ জন এবং দুইজনকে মৃত অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যুহার ১ দশমিক ৬৬ শতাংশ।