চরফ্যাশনে স্কুল ছাত্রী তানজিলা অপহরণ ও হত্যা মামলার প্রধান আসামি রাকিব গ্রেফতার

আমিনুল ইসলাম: চরফ্যাশনের চরমাদ্রাজ ইউনিয়নের চর আফজালের স্কুল পড়ুয়া সপ্তম শ্রেণীর মেধাবী ছাত্রী তানজিলা অপহরণ ও হত্যা মামলার অন্যতম প্রধান আসামি রাকিবকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷

আজ ২১ জুলাই দুপুর ১ টার সময় মোবাইল ট্রাকিং ও গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা চরফ্যাশন থানার এসআই ইয়াছিন পাইকের নেতৃত্বে পুলিশ চরফ্যাশন নতুন বাস স্ট্যান্ড থেকে পালিয়ে যাওয়ার সময় তাকে গ্রেফতার করেন৷

উল্লেখ্য, গত ১১ জুলাই চরমাদ্রাজ ইউনিয়নের চর আফজাল গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে আনোয়ার হোসেনের মেয়ে তানজিলা (১৩) বিকাল ৩টায় মোল্লাবাড়ি প্রাইভেট পড়তে যাওয়ার পথে পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা মাদকাসক্ত বখাটে রাকিব ও তার সহযোগিরা জোরপূর্বক মোটরসাইকেলে তুলে দ্রুত গতিতে স্থান ত্যাগ করে। বখাটেদের হাত থেকে বাঁচার জন্য চলন্ত মোটরসাইকেলে ঝাঁপটা ঝাপটির এক পর্যায়ে চরফ্যাশন পৌরসভা ৬ নং ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর জহির রায়হানের বাড়ির সামনে রাস্তায় পড়ে গিয়ে গুরুতর আহত হন তানজিলা৷ গুরুতর আহত অবস্থায় রাস্তায় ফেলে রেখে পালিয়ে যায় অপহরণকারী মাদকাসক্ত রাকিবগং৷

স্থানীয় লোকজনের ঘটনাটি নজরে আসলে প্রথমে তানজিলাকে চরফ্যাশন স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে আসেন৷ উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল নেয়ার পথে সন্ধ্যা ৭টায় পৃথিবীর মায়া ছেড়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে ১৩ বছরের নিষ্পাপ মেধাবী ছাত্রী তানজিলা৷ তাকে চর আফজাল নিজ বাড়ির পারিবারিক কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত করা হয়৷

তানজিলার বাবা আনোয়ার হোসেন কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, আমার পরিবার তানজিলার হত্যাকারী প্রধান আসামি রাকিবকে গ্রেপ্তারের খবর শুনে অত্যন্ত আনন্দিত৷ আমার নিষ্পাপ মেয়ে তার ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন পূরণ করতে পারল না৷ পারেনি মুক্তভাবে একটু নিঃশ্বাস নিতে৷ আমি মামলার অন্য আসামিদের অনতিবিলম্বে গ্রেফতার করে দেশের আইন অনুযায়ী সর্বোচ্চ শাস্তি কার্যকরের দাবি জানাচ্ছি৷ আমার মতো অন্য কারো মা-বাবা যেন তার আদরের সন্তানকে এমন মর্মান্তিক ঘটনায় মাটি দিতে না হয়৷

রাকিবের সহপাঠী (নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক) একজন শীর্ষবাণীকে জানান,আমরা তার সকল অপকর্মের বিরোধিতা করেছি সব সময়। কিন্তু আমাদের কথা শুনত না রাকিব। রাকিবের প্রধান কাজ ছিল স্কুল-কলেজ পড়ুয়া মেয়েদের ইভটিজিং করা, প্রেমের প্রলোভন দেখানো৷ অসংখ্য এ ধরনের অভিযোগ এসেছে আমাদের কানে৷ শেষ বেলায় তার নিষ্ঠুর অপরাধে মৃত্যু হল তানজিলার৷ আমরা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি৷

চরফ্যাশন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শামসুল আরেফিন জানান, তানজিলার বাবা আনোয়ার হোসেনের দায়ের করা অপহরণ ও হত্যা মামলা আমলে নিয়ে তদন্ত শেষে মোবাইল ট্রাকিংয়ের মাধ্যমে আজ দুপুর ১ টার সময় পালিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতিকালে রাকিবকে চরফ্যাশন নতুন বাস স্ট্যান্ড থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। বর্তমানে সে চরফ্যাশন থানায় আছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে৷ এ মামলার আসামিদের গ্রেফতারে পুলিশের পক্ষ থেকে কোনো গাফিলতি নেই৷
শীর্ষবাণী ডটকম/এনএ