চরফ্যাশনে আবাসিক হোটেলে গৃহবধূকে রাতভর ধর্ষণ, আটক ৩

আমিনুল ইসলাম, চরফ্যাশন: ভোলার চরফ্যাশন পৌরসভা ৫ নম্বর ওয়ার্ড হাসপাতাল রোড সেবা আবাসিক হোটেলে রেখে রাতভর ধর্ষণের অভিযোগে মোঃ সোহাগ (২৫), মোঃ পারভেজ (২৯), মোঃ মোতালেব হোসেন (৩০) নামের তিন যুবককে চরফ্যাশন থানা পুলিশ গ্রেফতার করেছেন।

রবিবার (৪ অক্টোবর) বিকেল ৫টায় চরফ্যাশন থানা পুলিশ তাদেরকে আটক করতে সক্ষম হন৷ গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন চরফ্যাশন মুজিব নগর ইউনিয়ন ৬নং ওয়ার্ডের মোঃ আমির হোসেন ব্যাপারির ছেলে মোঃ সোহাগ, সেবা হোটেলের বোরহানউদ্দিন থানার কুঞ্জের হাটের মোঃ নাগর পাটোয়ারীর ছেলে পারভেজ, নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর থানার, রসুলপুর ৩নং ওয়ার্ডের মৃত আজমল হোসেনের ছেলে মোতালেব হোসেন৷

জানা যায়, লালমোহন উপজেলার স্বর্ণালী সড়কের বাসিন্দা ধর্ষিতা গৃহবধূর সাথে পূর্ব পরিচয়ের সূত্র ধরে মুজিব নগর ইউনিয়নের সোহাগের সাথে মোবাইল ফোনে দীর্ঘদিন ধরে কথপোকথন চলছিল৷ এক পর্যায়ে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ফুসলিয়ে ৩ অক্টোবর সন্ধ্যায় গৃহবধূকে চরফ্যাশন নিয়ে আসেন৷ চরফ্যাশনে এসে রাতে হাসপাতাল রোডের সেবা আবাসিক হোটেলে রাত্রি যাপনের উদ্দেশ্যে রুম ভাড়া করেন৷ রাতে সোহাগ গৃহবধূকে বিয়ে করবে আশ্বাস দিয়ে হোটেলের ২১নং কক্ষে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে৷ সকালবেলা বাজার থেকে নাস্তা আনার কথা বলে আর ফিরে আসেনি সোহাগ৷ সহযোগী হিসেবে হোটেলের ম্যানেজার মোতালেব ও পারভেজ গৃহবধূকে এ ঘটনা কাউকে না বলার জন্য বিভিন্নভাবে হুমকি দিতে থাকেন৷

চরফ্যাশন সেবা আবাসিক হোটেল কর্তৃপক্ষ জানান, স্বামী-স্ত্রীর পরিচয় দিয়ে মুজিবনগর যাওয়ার নদী পারাপারের খেয়া না পাওয়ার অজুহাত দেখিয়ে আমাদের হোটেলে রুম ভাড়া করেন৷ এর থেকে বেশি কিছু জানি না৷ সকালে শুনতে পেলাম অন্য ঘটনা৷

রবিবার (৪ অক্টোবর) বিকেলে ভিকটিম বাদী হয়ে চরফ্যাশন থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা দায়ের করেন। মামলা নং ৪ তারিখ ৫অক্টোবর । সে মামলায় চরফ্যাশন থানা পুলিশ আসামিদের গ্রেপ্তার করেন।

চরফ্যাশন থানার অফিসার ইনচার্জ মনির হোসেন মিয়া এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ৫ অক্টোবর আসামিদেরকে কোর্টে হাজির করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়৷
শীর্ষবাণী/এনএ