একাত্তরের পর ভারতে কোনও বাংলাদেশির অনুপ্রবেশ ঘটেনি: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ এর বক্তব্যকে কার্যত উড়িয়ে দিলেন তাঁর কাউন্টারপার্ট বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। ভারতের একটি টিভি চ্যানেলকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বাংলাদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী দাবি করেন, একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধের পর ভারতে আর কোনও বাংলাদেশির অনুপ্রবেশ ঘটেনি।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের জিডিপি ভালো, দেশের আর্থিক স্বাস্থ্য ভালো, বাংলাদেশিরা কেন ভারতে যাবে? উল্লেখযোগ্য, অমিত শাহ সম্প্রতি কলকাতায় মন্তব্য করেছেন যে পশ্চিমবঙ্গে বিধানসভা ভোটের আগে বালাদেশিদের এদেশ ছাড়তে হবে। আসাদুজ্জামান বলেন, এন আর সি কিংবা সি এ এ ভারতের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার, তাই এ নিয়ে কোনও মন্তব্য তিনি করতে চাননা। শুধু জানাতে চান, একাত্তরে বেশ কিছু বাংলাদেশি ভারতে আশ্রয় নিয়েছিল। তারপর আর কোনও অনুপ্রবেশ হয়নি।

উল্লেখ্য, ভারত – বাংলাদেশের মধ্যে চারহাজার ছিয়ানব্বই কিলোমিটার সীমান্ত আছে। এর মধ্যে পশ্চিমবঙ্গে আছে, দুহাজার দুশো ষোলো কিলোমিটার মতো, আসামে দুশো তেষট্টি কিলোমিটার, মেঘালয়ে চারশো তেতাল্লিশ কিলোমিটার, ত্রিপুরায় ছশো ছাপ্পান্ন কিলোমিটার ও মিজোরামে তিনশো ছয় কিলোমিটারের মতো।

এর মধ্যে অনেকটাই পোরাস বর্ডার। দুই সীমান্ত দিয়েই চোরাচালান চলে মেনে নিয়ে বাংলাদেশ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ভারত বন্ধুদেশ। তাই, এই সমস্যার সমাধান আলাপ আলোচনার মধ্যেই হয়। অমিত শাহের মন্তব্য কোনও বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করবে না বলেই আসাদুজ্জামান মনে করেন।