উপকূলীয় এলাকায় চলছে মাইকিং: বাড়ানো হয়েছে আশ্রয়কেন্দ্র

এম জুয়েল, বরিশাল : ঘূর্ণিঝড় আম্পান থেকে জনসাধারণকে রক্ষার জন্য বরিশালসহ গোটা উপকূলীয় এলাকায় মাইকিং করছে ঘূর্ণিঝড় প্রস্তুতি কর্মসূচি (সিপিপি) এর সদস্যরা। আজ মঙ্গলবার ভোর থেকে নদী তীরবর্তী এলাকাগুলোতে জনসাধারণকে সচেতন করতে মাইকিং করতে দেখা যায় তাদের।

বরিশালের বিভাগীয় কমিশনার মোঃ ইয়ামিন চৌধুরী জানান, বরিশাল বিভাগে ৬ হাজার আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত করা হয়েছে। এসব আশ্রয়কেন্দ্রে ১১ লাখেরও বেশি মানুষ আশ্রয় নিতে পারবে। ঘুর্ণিঝড় বুলবুলের সময় ২ হাজার ৪ শ’ আশ্রয় কেন্দ্র্রে ১১ লাখ মানুষকে জায়গা দেয়া হয়েছিলো। কিন্তু এবার করোনার কারণে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার জন্য আশ্রয় কেন্দ্রের সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে।
উপকূলীয় এলাকায় বেশ কিছু ঝুঁকিপূর্ণ বাঁধ রয়েছে, সেসব এলাকার মানুষকে ইতোমধ্যে সতর্ক করা হয়েছে এবং নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে তারা যেন আশ্রয় কেন্দ্রে পৌঁছে যায়, সে বিষয়ে অবহিত করা হয়েছে। ইতোমধ্যে আশ্রয়কেন্দ্রগুলো থাকার উপযোগী এবং পর্যাপ্ত খাবার ব্যবস্থা করা হয়েছে বলে জানান বিভাগীয় কমিশনার।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের বরিশাল কার্যালয়ের জ্যেষ্ঠ পর্যবেক্ষক আনিসুর রহমান জানান, ঘূর্ণিঝড় আম্পানের গতি-প্রকৃতি পর্যবেক্ষণ করে যা বোঝা যাচ্ছে, তাতে এটি যদি আঘাত হানে, তা অতি প্রবল হওয়ার যথেষ্ট আশঙ্কা রয়েছে। এ ধরনের ঝড়ে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ যথেষ্ট হয়।
শীর্ষবাণী/প্রতিনিধি/এনএ