আল্লাহর সাথে ভালবাসার সম্পর্ক স্থাপনে যেসব শর্ত পূরণ করবেন

ড. মোহাম্মদ অলী উল্যাহ: আলহামদুলিল্লাহ্। করুনাময়ের অপার মহিমায় আমরা ১৩তম সিয়ামের সকাল অতিক্রম করলাম। আজকের বিষয় “আল্লাহ্ তাআলার ভালবাসা”। রমাদানের সিয়ামে পানাহার ও যৌনসম্ভোগ পরিত্যাগ করে বান্দা তার রবের রঙ্গে রঙ্গীন হয় যেটা তাঁর কাছে কাম্য। আল্লাহ্ তাআলার সাথে ভালবাসার সম্পর্ক দৃঢ় করাই মুমিন জীবনের শ্রেষ্ঠ লক্ষ্য। কোন মানুষ প্রকৃত অর্থেই আল্লাহকে ভালবাসে কি না তা নীচের শর্তসমূহ পূরণের মাধ্যমেই নিশ্চিত হওয়া যেতে পারে।

১. আল্লাহর কালাম তথা কুরআনকে তেলাওয়াত, অনুধাবন ও কুরআনের শিক্ষায় অন্তরকে আলোকিত করা।
২. রাসূল স. কে অনুসরণ, তাঁর উপর অধিক হারে দুরুদ পাঠ করা, তাঁকে নিষ্পাপ জ্ঞান করা ও আদর্শ হিসেবে গ্রহণ করার মাধ্যমে তাঁকে ভালবাসা।
৩. ইসলামের কোন শি’আর ভূলুন্ঠিত হলে অন্তরে ক্রোধ ও ক্ষোভ তৈরি হওয়া।
৪. ঈমান ও আমলকে জোরদার করে আল্লাহর বেলায়াত লাভের চেষ্টায় তৎপর থাকা।
৫. ভাল কাজের আদেশ ও খারাপ কাজ থেকে অন্যদেরকে বারণ করা।
৬. সৎ লোকের সংস্পর্শে যাওয়া ও তাদেরকে ভালবাসা।
৭. বেশী বেশী নফল ইবাদতের মাধ্যমে আল্লাহর নৈকট্য লাভের চেষ্টায় রত থাকা।
৮. দুনিয়ার চাইতে পরকালকে বেশী প্রাধান্য দেয়া।
৯. সকল প্রকার পাপাচার ছেড়ে তাওবা নাসূহা করা।
১০. আল্লাহর পথে শাহাদাতের আকাঙ্খা করা। উপরোক্ত গুণাবলী নিজের মধ্যে অর্জনের মাধ্যমে আল্লাহর ভালবাসা নিশ্চিত করার শিক্ষা দেয় সিয়াম।
আল্লাহ্ তাআলা রমাদানে আমাদেরকে তাঁর সাথে ভালবাসার সম্পর্ক দৃঢ় করার তাওফিক দান করুন।
রমাদানের শিক্ষা পরিবর্তন নিয়ে আসুক আমাদের প্রাত্যহিক কর্মে, ফিরিয়ে আনুক আমাদের গৌরবোজ্জ্বল অতীতকে এই কামনায়। আমীন।

লেখক : ড. মোহাম্মদ অলী উল্যাহ
অধ্যাপক, দাওয়াহ এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগ, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, কুষ্টিয়া।

সাবেক সাধারণ সম্পাদক, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি, কুষ্টিয়া।