আরও ৯ আনসার সদস্য করোনায় আক্রান্ত

ঢাকা অফিস : বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর আরও ৯ সদস্য করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে আনসারের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ১৭০ জনে। এতে এখনও মারা গেছেন একজন।

বুধবার (১৩ মে) সন্ধ্যায় বাংলাদেশ আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর সদর দফতর থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

এ ব্যাপারে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর উপ-পরিচালক (যোগাযোগ) মেহেনাজ তাবাসসুম রেবিন জানান, ১৩ মে পর্যন্ত আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তাসহ বিভিন্ন পর্যায়ের ১৭০ জন সদস্য ও কর্মচারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার পর্যন্ত এ আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ১৬১।

আক্রান্তদের মধ্যে রয়েছেন বাহিনীর উপ-মহাপরিচালক একজন, ৭১ জন ব্যাটালিয়ন আনসার, ৯৫ জন অঙ্গীভূত আনসার, একজন নারী আনসার, একজন নার্সিং সহকারী ও একজন সিগন্যাল অপারেটর।

তিনি আরও বলেন, আক্রান্ত সদস্যদের মধ্যে ৫৮ জন ব্যাটালিয়ন আনসার জাতীয় সংসদ ভবনে এবং ৬৬ জন অঙ্গীভূত আনসার সদস্য ঢাকা মহানগর পুলিশের সাথে কর্মরত রয়েছে। এছাড়া বাকিদের কেউ সদর দফতর এবং কেউ বিভিন্ন জেলায় কর্মরত রয়েছে।

আক্রান্তদের মধ্যে নিজ বাসায় কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন একজন। প্রাতিষ্ঠানিক ও বিভিন্ন আবাসিক হোটেলে কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন ৪৩৫ জন। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল, কুয়েত-বাংলাদেশ মৈত্রী সরকারি হাসপাতাল, মুগদা জেনারেল হাসপাতাল, সাজেদা মেডিকেল ও রাজারবাগ পুলিশ হাসপাতালসহ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে বাহিনীর ১৫৫ জন সদস্য করোনা উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

করোনাভাইরাসে এ পর্যন্ত বাহিনীর আব্দুল মজিদ নামে একজন সদস্য মৃত্যুবরণ করেছেন। মৃত্যুবরণকারী সদস্য আব্দুল মজিদ পিসি অঙ্গীভূত আনসার, (আইডি নং-১৩১৮৯) তার বাড়ি বগুড়ায়। মৃত্যুর আগে তিনি গুলশান বিভাগের ভাটারা থানায় কর্মরত ছিলেন। গত ১১ মে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যান। এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত আনসার সদস্যা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১১ জন।